Home » প্রধান খবর » সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টের আর্কাইভ তৈরি করবে মার্কিন নৌবাহিনী

সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টের আর্কাইভ তৈরি করবে মার্কিন নৌবাহিনী

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ডেস্ক, নিউটার্ন.কম ১ জুন : সাধারণ মানুষ অনলাইনে কি বিষয় নিয়ে আলোচনা করে, তা নিয়ে গবেষণা করার জন্য বিশ্বব্যাপী কমপক্ষে ৩৫০ বিলিয়ন সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টের একটি আর্কাইভ তৈরির প্রকল্প হাতে নিয়েছে মার্কিন নৌবাহিনী। তবে সামরিক এই প্রকল্পে কোন কোন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে তথ্য সংগ্রহ করা হবে তা নিয়ে নির্দিষ্ট করে কিছু বলেনি মার্কিন নৌবাহিনী।

জানা গেছে, এই প্রকল্পের অধীনে যে সমস্ত পোস্ট আর্কাইভে রাখা হবে তা সর্বজনীন (পাবলিক) হতে হবে। কমপক্ষে ১০০টি ভিন্ন ভিন্ন দেশের এবং কমপক্ষে ৬০টি ভিন্ন ভিন্ন ভাষার পোস্ট এই আর্কাইভে রাখা হবে। আর ২০১৪-২০১৬ সালের মধ্যে করা পোস্টগুলোই এতে স্থান পাবে।

তথ্য সরবরাহ করার জন্য ন্যাভাল পোস্টগ্রাজুয়েট স্কুল বিভিন্ন সংস্থার কাছ থেকে একটি দরপত্র আহ্বান করেছে। আর দরপত্রের নথি থেকেই এই তথ্যগুলো জানা গেছে। তবে এখন দরপত্রে আবেদন বন্ধ রয়েছে।

দরপত্রের নথি থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, অন্তত ২০০ মিলিয়ন সতন্ত্র ব্যবহারকারীদের পোস্ট এই আর্কাইভে স্থান পাবে। তবে কোনো নির্দিষ্ট দেশের পোস্ট ৩০% এরও বেশি হতে পারবে না। এর মধ্যে কমপক্ষে ৫০% ইংরেজি ব্যতীত অন্য কোনো ভাষার পোস্ট হতে হবে। আর অন্তত ২০% পোস্টে অবস্থান তথ্য থাকতে হবে। ব্যক্তিগত বার্তা এবং ব্যবহারকারীদের তথ্য এই ডাটাবেজের অংশ হবে না।

প্রকল্পটির প্রধান গবেষক টি ক্যামবার ওয়ারেন ব্লুমবার্গকে বলেন, ‘সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোর এ সমস্ত তথ্য আমাদেরকে প্রথমবারের মতো মানুষ কিভাবে এই মাধ্যমগুলোতে অভিব্যক্তি প্রকাশ করছে এবং হিংসাত্মক বাণী প্রচার করছে তা বুঝতে সাহায্য করবে। এর মাধ্যমে আমরা বুঝতে পারব যে, কিভাবে এবং কেন কিছু নির্দিষ্ট বক্তব্যকে ঘিরে সম্প্রদায়গুলো গড়ে উঠছে।’

মার্কিন নৌবাহিনী এর আগে ২০০২ সালেও ‘টর’ নামে বেনামী ব্রাউজিং নেটওয়ার্ক তৈরির পিছনে কাজ করেছিল। দ্য অনিয়ান রাউটার নামে পরিচিত ‘টর’ এর মূল লক্ষ্য ছিল, মানুষজন কিভাবে বিভিন্ন কম্পিউটারের নেটওয়ার্কে ওয়েব পেজগুলোর জন্য এনক্রিপশন ব্যবহার করে এবং বেনামী অনুরোধ উত্থাপন করে তা জানা।

তথ্যসূত্র : বিবিসি

নিউটার্ন.কম/এআর

0 Shares